Connect with us

বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড

এবাদত সামর্থ্যের প্রমাণ দিয়েছে: লিটন


প্রকাশ

:


আপডেট

:

ছবি : সংগৃহীত

|| ডেস্ক রিপোর্ট ||

ক্যারিয়ারের প্রথম ১০ টেস্টে সামর্থ্যের ছিটেফোঁটাও দেখাতে পারেননি এবাদত হোসেন। উল্টো ডানহাতি এই পেসারের সামর্থ্য নিয়ে প্রশ্নও উঠেছে অনেক। কিন্তু সব সমালোচনা পেছনে ফেলে এই এবাদতই বাংলাদেশকে দেখালেন আশার আলো। তার ৪ উইকেট পাওয়ার দিনে এখন চালকের আসনে মুমিনুল হকের দল।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে চলমান টেস্ট শুরুর আগে ১০ টেস্টে এবাদতের উইকেট মাত্র ১১ টি। বোলিং গড় ছিলো ৮১.৫৫। কিন্তু মাউন্ট মঙ্গানুই টেস্টের চতুর্থ দিন সব হিসেবেই যেন পাল্টে দিলেন সিলেটের এই পেস বোলার।

এবাদতের আগুনে বোলিংয়ে ৫ উইকেটে ১৪৭ রান নিয়ে দিন শেষ করেছে নিউজিল্যান্ড। ১৭ রানে এগিয়ে থাকলেও দুশ্চিন্তার ভাঁজ অবশ্যই পড়েছে কিউইদের কপালে। আর নিউজিল্যান্ডকে এমন দুশ্চিন্তায় ফেলা এবাদতের সতীর্থ লিটন দাস বলছেন, অন্তত এই ইনিংসের বোলিং দিয়ে এবাদত নিজের সামর্থ্যের প্রমাণ দিয়েছেন।

দিন শেষে তার ভূয়সী প্রশংসা করে সংবাদ সম্মেলনে লিটন দাস বলেন, ‘সে (এবাদত) একটা ফরম্যাটেই খেলে, অনেক সময় বাংলাদেশে খেলা হলে খেলে, আবার খেলে না। সুতরাং এই জিনিসগুলা মাথায় রাখতে হবে যে একটা পেস বোলারের জন্য সবসময় সব কিছু অনুকূলে থাকে না। হ্যাঁ তার হয়তো গড়টা একটু বেশি, ইকোনোমি একটু বেশি ছিল, কিন্তু তার যে যোগ্যতা আছে, সে যে ভালো বোলার সেটি সে আজ প্রমাণ করেছে।’

‘সামনেও সে প্রমাণ করবে, এই বিষয়ে আমি বেশ আশাবাদী। আমার মনে হয় তাকে একটু সময় দেওয়া উচিত। আমার মনে হয় আমি যা দেখলাম, ওর ম্যাচ ১১টা কি ১২টা (১১ টি চলমান)। আমার মনে হয় একটা টেস্ট খেলোয়াড়ের ১৫-১৭ ম্যাচ লাগে তার অভিজ্ঞতাটা আনতে, ক্রিকেটটাকে বুঝতে। তাই আমার মনে হয় ওই সময়টা তাকে দেওয়া উচিত।’

নিউজিল্যান্ডকে প্রথম ইনিংসে ৩২৮ রানে গুটিয়ে দেয় বাংলাদেশ।  যেখানে ১৮ ওভার বল করে ৭৫ রান খরচায় এক উইকেট নেন এবাদত। জবাবে বাংলাদেশ নিজেদের প্রথম ইনিংসে পেয়েছে ৪৫৮ রানের পুঁজি। ১৩০ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করা নিউজিল্যান্ড চতুর্থ দিন শেষ করেছে ৫ উইকেটে ১৪৭ রানে।

৬৩ রানে ২ উইকেট হারানো নিউজিল্যান্ডকে টেনে নেয় রস টেলর ও উইল ইয়ংয়ের ৭৩ রানের জুটি। দুজনে প্রায় দিন শেষ করার পথেই ছিলেন। কিন্তু এবাদত হোসেনের শেষ ঘন্টার এক স্পেলে বিপর্যস্ত কিউই ব্যাটিং লাইন আপ। টেইলর-ইয়াংয়ের ৭৩ রানের জুটি ভাঙেন এবাদত।

ভেতরে ঢোকানো গুড লেংথের বলে বোল্ড করেন ১৭২ বলে ৭ চারে ৬৯ রান করা ইয়াংকে। এক বলের ব্যবধানে এবাদত বোল্ড করেন হেনরি নিকোলসকেও (০)। নিজের পরের ওভারেই এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলেন টম ব্লান্ডেলকে (০)। এবাদতের ৬ ওভারের এই স্পেলটি ছিলো এমন ৬-২-১৪-৩।

এবাদতের শেষ বিকেলের স্পেলটি নিয়ে লিটন বলেন, ‘অবশ্যই আমাদের যতগুলা বোলার বল করেছে সবাই একই লেংথে, আমাদের যে পরিকল্পনা ছিল যে অনুযায়ী বল করেছে। এবাদত আজকে দুর্দান্ত ছিল। ওর দুটো স্পেলই চমৎকার ছিল। আমার মনে সে একই জায়গায় বল করার কারনে অনেক হেল্প পেয়েছে। তার ব্রেক থ্রু আমাদের দলকে অনেক বুস্ট আপ করেছে।’

সর্বশেষ

১৬ মে, সোমবার, ২০২২

ফিরলেন হেটমায়ার, খেলবেন আগামী ম্যাচে

১৬ মে, সোমবার, ২০২২

ফার্নান্দোকে ফিরিয়ে নাঈমের ফাইফার

১৫ মে, রবিবার, ২০২২

বল স্টাম্পে লাগলেই আউট চান চাহাল

১৫ মে, রবিবার, ২০২২

এক ম্যাচ পরই মত বদলালেন আইয়ার

১৫ মে, রবিবার, ২০২২

চেন্নাইকে হারিয়ে কলকাতার ফ্লাইট ধরলো গুজরাট

১৫ মে, রবিবার, ২০২২

৫০০ ছাড়িয়ে থামতে চায় শ্রীলঙ্কা

১৫ মে, রবিবার, ২০২২

অনুশীলন ‘না’ করলেও সাকিবের ওপর আস্থা থাকবে, বলছেন হেরাথ

১৫ মে, রবিবার, ২০২২

রশিদদের দাবিয়ে রাখতে পারবেন না: পিটারসেন

১৫ মে, রবিবার, ২০২২

চেষ্টা করেও সাইমন্ডসকে বাঁচাতে পারেননি এক পথচারী

১৫ মে, রবিবার, ২০২২

নেতৃত্ব হার্দিককে আরও বিনয়ী করে তুলছে: শামি

আর্কাইভ

বিজ্ঞাপন