Connect with us

বিসিএল

দিপুর ১০১ ও মাহমুদউল্লাহর ৯৬, ফাইনালে নর্থ জোন


প্রকাশ

:

ছবি : ক্রিকফ্রেঞ্জি

|| ডেস্ক রিপোর্ট ||

মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন-শফিকুল ইসলামের দুর্দান্ত বোলিংয়ের পরও ব্যাট হাতে দলের হয়ে একাই লড়েছেন মোহাম্মদ মিঠুন। সৌম্য সরকার-নাজমুল হোসেন শান্তদের ব্যর্থদের দিনে মিঠুন তুলে নিয়েছেন সেঞ্চুরিও। তবে ডানহাতি এই ব্যাটারের সেঞ্চুরি ম্লান হয়েছে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের ৯৬ এবং শাহাদাত হোসেন দিপুর ১০১ রানের ইনিংস। তাদের দুজনের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে সেন্ট্রাল জোনকে ৫ উইকেটে হারিয়ে বিসিএলের ফাইনালে জায়গা করে নিলো নর্থ জোন।

বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের (বিকেএসপি) ৩ নম্বর মাঠে জয়ের জন্য ২২৯ রান তাড়া করতে নেমে ইনিংসের দ্বিতীয় বলেই উইকেটে হারায় নর্থ জোন। রবিউল হকের বলে তুলে মারতে গিয়ে তাইজুল ইসলামের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন সৈকত আলী। তিনে নেমে ইনিংস বড় করতে পারেননি লিটন দাসও। 

মুশফিক হাসানের বলে উড়িয়ে মারতে গিয়ে ডিপ মিডউইকেটে থাকা আব্দুল মজিদের হাতে ক্যাচ দেন ডানহাতি এই ব্যাটার। লিটন এদিন আউট হয়েছেন ৮ বলে ৯ রান করে। দিপুর সঙ্গে ফজলে মাহমুদ রাব্বি প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করলেও সেটা খুব বেশি  বড় করতে পারেননি। তাদের দুজনের জুটি ভেঙেছেন মুশফিক। ডানহাতি এই পেসারের বলে উইকেটকিপার জাকের আলী অনিকের গ্লাভসে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন ১১ রান করা রাব্বি। 

এরপর অবশ্য দারুণ এক জুটি গড়েন তোলেন দিপু এবং মাহমুদউল্লাহ। মুশফিকের বলে ডিপ মিড উইকেট দিয়ে চার মেরে ৯১ বলে হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন দিপু। এরপর সেন্ট্রাল জোনের বোলারদের উপর চড়াও তরুণ এই ওপেনার। তাকে দারুণভাবে সঙ্গ দেয়া মাহমুদউল্লাহ হাফ সেঞ্চুরি পেয়েছেন মুমিনুল হকের বলে ছক্কা মেরে। 

বাঁহাতি এই স্পিনারের বলে ডিপ মিড উইকেট দিয়ে উড়িয়ে মেরে ৬৩ বলে হাফ সেঞ্চুরি পান মাহমুদউল্লাহ। সেন্ট্রাল জোনের অগোছালো বোলিংয়ের সুযোগ নিয়ে দারুণ সব শট খেলতে থাকেন এই ব্যাটার। মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের বলে ডিপ কভারে ঠেলে দিয়ে এক রান নিয়ে সেঞ্চুরি তুলে নেন দিপু। তরুণ এই ব্যাটার সেঞ্চুরি পেয়েছেন ১৪৮ বলে। 

সেঞ্চুরি পাওয়ার পর অবশ্য দীর্ঘস্থায়ী হতে পারেননি দিপু। মমিনুলের বলে লেগ বিফোর উইকেটের ফাঁদে পড়ে সাজঘরে ফেরেন ১০১ রান করা এই ব্যাটার। শেষ দিকে সেঞ্চুরির খুব কাছে গেলেও সেটা করা হয়নি মাহমুদউল্লাহর। দলের রান যখন প্রয়োজন মাত্র ২ তখন সেঞ্চুরির জন্য মাহমুদউল্লাহর প্রয়োজন ৪।

এমন সময় শান্তর বলে ডাউন দ্য উইকেটে খেলতে গিয়ে স্টাম্পিং হয়েছেন তিনি। ফলে সেঞ্চুরির আক্ষেপ নিয়ে ৯৬ রানে ফিরে যেতে হয় অভিজ্ঞ এই ব্যাটার। শেষ দিকে আকবর আলী এবং শামীম হোসেন পাটোয়ারি নর্থ জোনের জয় নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়েন। সেন্ট্রাল জোনের হয়ে দুটি উইকেট নিয়েছেন মুশফিক।

এর আগে ব্যাটিং করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ২২৮ রানের পুঁজি পায় সেন্ট্রাল জোন। দলটির হয়ে সর্বোচ্চ ১২১ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেছেন মিঠুন। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৮ রান এসেছে পেসার হাসান মাহমুদের ব্যাট থেকে। দুটি করে উইকেট নিয়েছেন সাইফউদ্দিন, শফিকুল এবং সৈকত।

সর্বশেষ

২৬ নভেম্বর, শনিবার, ২০২২

ল্যাঙ্গারকে নিয়ে মুখ খুললেন স্টার্ক

২৬ নভেম্বর, শনিবার, ২০২২

ওয়ার্নারকে অস্ট্রেলিয়ার নেতৃত্বে চান ম্যাকগ্রা

২৬ নভেম্বর, শনিবার, ২০২২

ইব্রাহিমের সেঞ্চুরিতে জয় দিয়ে শুরু করল আফগানিস্তান

২৬ নভেম্বর, শনিবার, ২০২২

ভারত আমাদের ছাড়াই বিশ্বকাপ আয়োজন করুক: রমিজ

২৫ নভেম্বর, শুক্রবার, ২০২২

রাওয়ালপিন্ডিতে অনিশ্চিত উড

২৫ নভেম্বর, শুক্রবার, ২০২২

'বিশ্বকাপ জিততে হলে, আইপিএল ছাড়ো'

২৫ নভেম্বর, শুক্রবার, ২০২২

মিঠুনের নেতৃত্বে ভারতের বিপক্ষে খেলবেন মুমিনুল-মোসাদ্দেকরা

২৫ নভেম্বর, শুক্রবার, ২০২২

বিগ ব্যাশে লিভিংস্টোনের বদলি গাপটিল

২৫ নভেম্বর, শুক্রবার, ২০২২

লাথামের সেঞ্চুরিতে ভারতকে হারালো নিউজিল্যান্ড

২৫ নভেম্বর, শুক্রবার, ২০২২

গল টেস্টের তদন্তে নামছে আকসু

আর্কাইভ

বিজ্ঞাপন