Connect with us

প্রেসিডেন্ট’স কাপ

ফাইনালের আশা বাঁচিয়ে রাখল মাহমুদউল্লাহরা


প্রকাশ

:


আপডেট

:

ছবি : ছবি: ক্রিকফ্রেঞ্জি

|| ক্রিকফ্রেঞ্জি করেসপন্ডেন্ট ||

২২২ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই দুই ওপেনারকে হারালেও, মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানদের দৃঢ়তায় প্রেসিডেন্টস কাপে দ্বিতীয় জয় তুলে নিয়েছে মাহমুদউল্লাহ একাদশ। সোমবার (১৯ অক্টোবর) তামিম একাদশকে ৪ উইকেটে হারিয়েছে মাহমুদউল্লাহবাহিনী। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৬৭ রান করেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ।

জয়ের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নামা মাহমুদউল্লাহ একাদশ শুরুর দুই ওভারে দুই ওপেনারকে হারিয়ে বসে। সাইফউদ্দিনের ভেতরে আসা বলে বোল্ড হয়ে ফিরেছেন নাঈম শেখ। এরপরের ওভারে মুস্তাফিজের বলে ফিরে গেছেন লিটন দাস।

৮ রানে ২ ব্যাটসম্যানকে হারালেও তরুণ মাহমুদুল হাসান এবং ইমরুল কায়েসের ব্যাটে ঘুরে দাঁড়ায় মাহমুদউল্লাহ একাদশ। মাহমুদুলকে দর্শক বানিয়ে একপ্রান্ত থেকে দলের স্কোরবোর্ডে রান যোগ করতে থাকেন ইমরুল। দেখে শুনে খেলা জয় ধীরগতিতে এগোতে থাকেন।

ব্যক্তিগত ৪৯ রানে খালেদের বলে পয়েন্ট অঞ্চলে মেহেদির হাতে ইমরুল ক্যাচ দিয়ে ফিরলেও, তিনে নামা অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর সঙ্গে জুটি গড়েন তরুণ মাহমুদুল। দেখে শুনে ৮৬ বলে হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন তিনি। 

এই দুজনের ৫৬ রানের জুটি ভাঙ্গেন তাইজুল। ৫৮ রানে ফিরে যান মাহমুদুল। এরপর নুরুলকে সঙ্গে নিয়ে আর পেছনে তাকাননি মাহমুদুল্লাহ। ৭০ বলে হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেয়ার পাশাপাশি দলকে জয়ের খুব কাছে নিয়ে যান তিনি। 

এই দুজনের ৬৫ রানের জুটি ভাঙ্গেন সাইফউদ্দিন। ডিপ স্কোয়ার লেগে মোসাদ্দেকের হাতে ক্যাচ দিয়ে বসেন তিনি। ৬৭ রানে মাহমুদউল্লাহ ফেরার পর জয় থেকে এক রান দূরে থাকা অবস্থায় বোল্ড হন সাব্বির। ৩ রানে ফেরেন এই ব্যাটসম্যান। শেষ ওভারের প্রথম বলে সিঙ্গেল নিয়ে ৫ বল বাকি থাকতে নুরুলের ব্যাটে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় মাহমুদুল্লাহ একাদশ।  

এর আগে টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতার পর ,মিডল এবং লোয়ার মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানদের দৃঢ়তায় লড়াকু পুঁজি পায় তামিম একাদশ। নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ২২১ রান স্কোরবোর্ডে তুলে তারা। সর্বোচ্চ ৬২ রান আসে ইয়াসির আলী রাব্বির ব্যাট থেকে। মাহমুদউল্লাহ একাদশের হয়ে সর্বোচ্চ ৪ উইকেট নিয়েছেন রুবেল হোসেন। 

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

তামিম একাদশ: ২২১/৮ (৫০ ওভার)
(তামিম ৯, তানজিদ ১, এনামুল ১, ইয়াসির ৬২, মিঠুন ২, অঙ্কন ৫৭, মোসাদ্দেক ৪০, সাইফ উদ্দিন ৩৮, মেহেদি ১*, তাইজুল ০*; রুবেল ১০-৩-৩৪-৪, আবু হায়দার ১০-০-৪০-১, ইবাদত ১০-১-৬০-২, রকিবুল ১০-০-৩২-০, মিরাজ ৫-০-৩০-০, মাহমুদউল্লাহ ৫-০-২৩-০)।

মাহমুদউল্লাহ একাদশ: ২২২/৬ (৪৯.১ ওভার)
নাইম ৩, লিটন ৫, মাহমুদুল ৫৮, ইমরুল ৪৯, মাহমুদউল্লাহ ৬৭ , সোহান ২৬*, সাব্বির ৩, মিরাজ ০* ;  সাইফউদ্দিন ১০-১-৪৯-৩, মুস্তাফিজ ১০-১-৫৩-১, খালেদ ১০-০-৩৯-১, তাইজুল ১০-০-৪০-১, মেহেদী ৯.১-০-৩৬-০।

সর্বশেষ

৩০ জুন, বৃহস্পতিবার, ২০২২

চার বছর পর টি-টোয়েন্টি দলে ফিরলেন মিরাজ

৩০ জুন, বৃহস্পতিবার, ২০২২

ঝড়ে ভেঙ্গে পড়েছে গল স্টেডিয়ামের গ্র্যান্ড স্ট্যান্ড

৩০ জুন, বৃহস্পতিবার, ২০২২

কোহলির কাছে সেঞ্চুরি নয়, দলে অবদান চান দ্রাবিড়

৩০ জুন, বৃহস্পতিবার, ২০২২

আবারও করোনা পজিটিভ রোহিত, নেতৃত্ব দেবেন বুমরাহ

৩০ জুন, বৃহস্পতিবার, ২০২২

ওয়ানডে সিরিজ থেকে ছুটি চেয়েছেন সাকিব

২৯ জুন, বুধবার, ২০২২

বাংলাদেশে টেস্ট সংস্কৃতি নেই, বলছেন পাপনও

২৯ জুন, বুধবার, ২০২২

ভারতকে বাদ দিয়ে পাকিস্তানের ত্রিদেশীয় সিরিজের ভাবনা

২৯ জুন, বুধবার, ২০২২

স্পিনারদের দাপটে প্রথম দিন অস্ট্রেলিয়ার

২৯ জুন, বুধবার, ২০২২

কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ পড়লেন ব্রাভো-লুইস

২৯ জুন, বুধবার, ২০২২

৬ বছর পর সাউথ আফ্রিকার টি-টোয়েন্টি দলে রাইলি রুশো

আর্কাইভ

বিজ্ঞাপন