Connect with us

বাংলাদেশ 'এ' দল

নাইমের সেঞ্চুরিতে সিরিজে সমতা ফেরালো বাংলাদেশ


প্রকাশ

:

ছবি : সংগৃহীত

|| ডেস্ক রিপোর্ট ||

ওয়েস্ট ইন্ডিজ 'এ' দলের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে পাত্তাই পায়নি বাংলাদেশ 'এ' দল। যেখানে ব্যর্থতার দায় পুরোটাই ছিল ব্যাটারদের কাধে। তবে দ্বিতীয় ম্যাচেই ঘুরে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ। নাইম শেখের সেঞ্চুরিতে ক্যারিবিয়ানদের ৪৪ রানের ব্যবধানে হারিয়েছে বাংলাদেশ। এর ফলে সিরিজেও ১-১ এ সমতা ফিরেছে।

২৭৮ রানের জয়ের লক্ষ্যে ব্যাটিং করতে নেমে দুর্দান্ত শুরু করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। দুই ওপেনার তাগনারায়ণ চন্দরপল এবং জশুয়া ডি সিলভা মিলে ওপেনিং জুটিতে ৯৪ রান তোলেন। তাদের এমন সাবলীল ব্যাটিংয়ে জয়ের পথেই এগোচ্ছিল তারা। চন্দরপলকে ৩৮ রানে সাজঘরে ফিরিয়ে ক্যারিবিয়ান শিবিরে প্রথম আঘাত হানেন রেজাউর রহমান রাজা। আরেক ওপেনার ডি সিলভাকেও ফিরিয়েছেন এই পেসার।

দুই ওপেনারের বিদায়ের পরই পথ হারায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। দুই উইকেটে ১২১ রান থেকে ১৭৫ রান তুলতেই ৭ উইকেট হারায় তারা। এরপর আর ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি ক্যারিবিয়ানরা। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ২৩৩ রান তুলে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এর ফলে ৪৪ রানের ব্যবধানে জয় পায় বাংলাদেশ। টাইগারদের হয়ে ৩২ রানে ৩ উইকেট শিকার করেছেন মুকিদুল ইসলাম মুগ্ধ।

এর আগে সেন্ট লুসিয়াতে টস হেরে ব্যাটিং করতে নেমে শুরুটা ভালো করতে পারেনি বাংলাদেশ ‘এ’ দল। আনঅফিসিয়াল প্রথম ওয়ানডের মতো এদিনও ব্যাট হাতে ব্যর্থ হয়েছেন সৌম্য সরকার। শেরমন লুইসের অফ স্টাম্পের বাইরের বল খেলতে গিয়ে ইনসাইড এজ হয়ে বোল্ড হয়েছেন বাঁহাতি এই ওপেনার। প্রথম ম্যাচে ১৫ রান করা সৌম্য এদিন আউট হয়েছেন ৬ রানে।

সৌম্য ফেরার পর বাংলাদেশের হয়ে প্রতিরোধ গড়ে তোলেন নাইম শেখ ও সাইফ হাসান। তাদের দুজনের ব্যাটে পাওয়ার প্লেতে দাপট দেখায় সফরকারীরা। তবে সাইফ ও নাইমের জুটি ভাঙেন ব্রায়ান চার্লস। ডানহাতি এই অফ স্পিনারের বলে বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফেরেন ১৯ রান করা সাইফ। 

ডানহাতি এই ব্যাটার ফেরার পর হাফ সেঞ্চুরির দেখা পান নাইম।প্রেস্টন ম্যাকসুইনের বলে চার মেরে ৫৬ বলে হাফ সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন বাঁহাতি এাই ওপেনার। এরপর তাকে সঙ্গ দেন অধিনায়ক মিঠুন। তারা দুজনে মিলে বাংলাদেশকে  এগিয়ে নিতে থাকেন। তাদের দুজনের জুটি ভাঙেন অ্যান্ডারসন ফিলিপ। 

যদিও সাজঘরে ফেরার আগে সেঞ্চুরি তুলে নেন নাইম। আগের ম্যাচে ব্যর্থ হওয়া নাইম এদিন আউট হয়েছেন ১০৩ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলে। যেখানে ১৪ চারের সঙ্গে একটি ছক্কাও মারেন তিনি। নাইম ফেরার পর দ্রুতই ফেরেন মিঠুন। বাংলাদেশের অধিনায়ককে আউট হন ২৮ রানে। তাকে সাজঘরে ফেরান স্পিনার চার্লস।

মিঠুন ফেরার পর শাহাদাত হোসেন দিপুকে সঙ্গে নিয়ে ৬৯ রানের জুটি গড়ে তোলেন সাব্বির রহমান। তাদের দুজনের জুটি ভাঙেন লুইস। ডানহাতি এই পেসারের গুড লেংথ ডেলিভারিতে বলের লাইন মিস করে বোল্ড হন ২৪ রান করা দিপু। ডানহাতি এই ব্যাটার ফেরার পর ৫০ বলে হাফ সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন সাব্বির।

যদিও হাফ সেঞ্চুরির পর সাজঘরে ফিরে যেতে হয় তাকে। উড়িয়ে মারতে গিয়ে ডানহাতি এই ব্যাটার আউট হয়েছেন ৬২ রানের ইনিংস খেলে। সাব্বিরকে সঙ্গ দেয়া জাকের আলি অনিক অপরাজিত ছিলেন ১৮ রানে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে দুটি করে উইকেট নিয়েছেন চার্লস ও লুইস।

সর্বশেষ

৭ অক্টোবর, শুক্রবার, ২০২২

'পাকিস্তান অনেক বেশি বাবর-রিজওয়ান নির্ভর'

৭ অক্টোবর, শুক্রবার, ২০২২

কম বয়সীদের সুযোগ দিয়েছি, পাকিস্তানের কাছে হারের পর ভারতের কোচ

৭ অক্টোবর, শুক্রবার, ২০২২

ওয়ার্নার ঝড়ের পর স্টার্কের আগুনে পুড়লো ওয়েস্ট ইন্ডিজ

৭ অক্টোবর, শুক্রবার, ২০২২

কঠোর পরিশ্রম করি, বাকিটা আল্লাহর ওপর ছেড়ে দেই: রিজওয়ান

৭ অক্টোবর, শুক্রবার, ২০২২

জিম্বাবুয়ের দায়িত্ব ছাড়লেন ক্লুজনার

৭ অক্টোবর, শুক্রবার, ২০২২

ভারতের জয়রথ থামাল পাকিস্তান

৭ অক্টোবর, শুক্রবার, ২০২২

পাকিস্তানের পতাকা উড়ানো হুসেনরা সমর্থন দিচ্ছেন বাংলাদেশকেও

৭ অক্টোবর, শুক্রবার, ২০২২

ম্যাচ কোথায় ফসকে গেছে জানালেন সোহান

৭ অক্টোবর, শুক্রবার, ২০২২

ত্রিদেশীয় সিরিজ থেকে ছিটকে গেলেন মিচেল

৭ অক্টোবর, শুক্রবার, ২০২২

ব্যাটিংয়ের জন্য ভালো উইকেট ছিল, হতাশ সোহান

আর্কাইভ

বিজ্ঞাপন