Connect with us

বাংলাদেশ-পাকিস্তান সিরিজ

দ্বিতীয় সেশন নিয়ে মিরাজের আক্ষেপ


প্রকাশ

:

ছবি : ক্রিকফ্রেঞ্জি

|| ডেস্ক রিপোর্ট ||

পাকিস্তানের বিপক্ষে চলতি টেস্ট সিরিজে বাংলাদেশের হতাশার আরেক নাম পেস বোলিং। চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম ইনিংসে এবাদত হোসেন ২টি উইকেট নিয়েছিলেন। তার সঙ্গী আবু জায়েদ রাহী ছিলেন উইকেটশূন্য। দ্বিতীয় ইনিংসে দুই পেসারের কেউই কোনো উইকেট পাননি।

চলতি ঢাকা টেস্টের প্রথম দিন এবাদত দারুণ শুরু করেছিলেন। উইকেট থেকে সুবিধা আদায় করে বেশ সুইংও পাচ্ছিলেন। যদিও দলের জন্য প্রয়োজনে উইকেট এনে দিতে পারেননি। পাকিস্তানের ইনিংসের দুটি উইকেটই নিয়েছেন অভিজ্ঞ স্পিনার তাইজুল ইসলাম। মিরাজ মনে করেন দ্বিতীয় সেশনে উইকেট না পড়াই কাল হয়েছে তাদের জন্য।

মিরাজ বলেন, 'টেস্টে শুরুতে উইকেট নেয়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ, আর উইকেট না পড়লে রান আটকে রাখাও গুরুত্বপূর্ণ। যেটা আসলে আমাদের প্রথম থেকে হচ্ছিল না। প্রথম সেশনে আমরা যেমন বল করেছি বিশেষ করে স্পিনাররা, আর এবাদত যেভাবে বল করেছিল অনেকটা উইকেট টেকিংয়ের মতোই হয়েছিল। আমি মনে করি যে আমরা খুব বেশি ভালো অবস্থানে না থাকলেও মোটামুটি একটা জায়গায় এসেছি।'

ঘুর্ণিঝড় জাওয়াদের প্রভাবে দিনের শুরু থেকেই মিরপুরের আকাশ ছিল মেঘাচ্ছন্ন। চা বিরতির পর আলোস্বল্পতার কারণে আর একটি বলও মাঠে গড়ায়নি। আম্পায়াররা বিকেল ৪টার পর মাঠ পর্যবেক্ষণ করে দিনের খেলা পরিত্যক্ত ঘোষণা করেন। মিরাজ মনে করেন কন্ডিশনের সুবিধা কাজে লাগানোর সুযোগ ছিল তাদের সামনে। কিন্তু তারা সেটা পারেননি।

মিরাজের ভাষ্য, 'দ্বিতীয় সেশনে যদি আমরা আরো কিছু উইকেট নিতে পারতাম তাহলে আমাদের জন্য আরো সহজ হতো। এই আবহাওয়াটা যদি কাজে লাগাতে পারতাম আরো দুটা উইকেট পেতে পারতাম তাহলে আমাদের জন্য ভালো হতো। ওদের দুইটা উইকেট পড়েছে, ওদের ব্যাটাররা আক্রমণাত্মক ব্যাটিং করেছে। আমাদের ভালো বলগুলো ম্যানেজ করে বাউন্ডারি নিয়েছে। কিন্তু এখনও অনেক সময় বাকি, মাত্র দুটা সেশন হয়েছে। চারদিন বাকি আছে, এখনও অনেক সিনারিও বাকি আছে।'

মিরাজ মনে করেন সাদা পোশাকের ক্রিকেটে ভেরিয়েশনের চেয়ে লাইন লেন্থ বেশি গুরুত্বপূর্ণ। তাই এটা কাজে লাগাতে লাইন লেন্থ ঠিক রেখে বোলিং করার বিকল্প নেই। টেস্টে যেকোনো বোলারকেই উইকেট নিতে হলে সেট হতে হয় বলেও মনে করেন মিরাজ।

তার ভাষ্য, ‘টেস্ট ক্রিকেটে ভেরিয়েশনের চেয়ে লাইন লেন্থ গুরুত্বপূর্ণ বেশি। এটা তখনই কাজে লাগবে যদি লাইন লেন্থ ভালো জায়গায় থাকে। ওয়ানডে টি-টোয়েন্টিতে ভেরিয়েশন খুব কাজে লাগে কারণ ওখানে অনেক রকম বল করতে হয়, টেস্ট ক্রিকেটে কিন্তু একই রকম বল করতে হয়। এখানে বিভিন্ন রকম বল করলে রান হয়ে যায়। এখানে একই জায়গায় টানা বল করে উইকেট নিতে হয়। এখানে দুই-তিন ওভারেই উইকেট পড়বে এটা ভাবা যায় না।'

'টেস্ট ক্রিকেটে একজন বোলারকে সেট হতে হয়। ভেরিয়েশন প্রত্যেক ওভারে ওভারে এটা টেস্ট ক্রিকেটে হয় না। বোলার হিসেবে আমি পাঁচ-সাত ওভার বল করার পর একটা ভেরিয়েশন বল করতে পারি ওটাতে উইকেট নাও পরতে পারে। ভেরিয়েশন এভাবেই হয়। পরিবর্তন করতে থাকলে বিপক্ষ ব্যাটসম্যানের ওপর চাপ তৈরি হয়না। তখন সাফল্য আসার সুযোগটাও কম থাকে। ’

সর্বশেষ

২৬ জানুয়ারী, বুধবার, ২০২২

জয়ের পরিপক্বতায় মুগ্ধ রোডস

২৬ জানুয়ারী, বুধবার, ২০২২

বল টেম্পারিং করে শাস্তি পেল নেদারল্যান্ডস

২৬ জানুয়ারী, বুধবার, ২০২২

ইমরুলের অধিনায়কত্ব মনে ধরেছে রোডসের

২৬ জানুয়ারী, বুধবার, ২০২২

শ্রীলঙ্কার বোলিং কোচের দায়িত্ব পাচ্ছেন মালিঙ্গা!

২৬ জানুয়ারী, বুধবার, ২০২২

রোহিত তিন সংস্করণেই নেতৃত্ব দেয়ার যোগ্য: মাঞ্জরেকার

২৬ জানুয়ারী, বুধবার, ২০২২

পাকিস্তান সফরে নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা কাটেনি অজিদের

২৫ জানুয়ারী, মঙ্গলবার, ২০২২

নাহিদুলে মুগ্ধ সাকিব-ইমরুল

২৫ জানুয়ারী, মঙ্গলবার, ২০২২

নাহিদুলের ঘূর্ণিতে কুমিল্লার দ্বিতীয় জয়

২৫ জানুয়ারী, মঙ্গলবার, ২০২২

টি-টোয়েন্টি র‌্যাঙ্কিংয়ে মুর্শিদার লম্বা লাফ

২৫ জানুয়ারী, মঙ্গলবার, ২০২২

টি-টোয়েন্টিতে ফেরাতে তামিমের সঙ্গে পাপনের বৈঠক

আর্কাইভ

বিজ্ঞাপন